/ / BENGALI LOVE STORY - ' বিষাক্ত ভালোবাসা '

BENGALI LOVE STORY - ' বিষাক্ত ভালোবাসা '



তরী অপেক্ষা করছে শুভমের জন্য। গতকাল দেখা করার কথা ছিল তাদের। কিন্তু শুভমের শরীর খারাপ থাকায় গতকাল তারা দেখা করতে পারেনি। 

কিছুক্ষন পর শুভম আসলো সাইকেল চালিয়ে । তারপর তারা বসলো ঘাসের উপর দুজন দুজনের মুখোমুখি হয়ে। তরী শুভমের হতে হাত রাখলো। দেখলো জ্বর আছে কিনা।

--" নাহ...এখন জ্বর নেই। তাপমাত্রা মোটামুটি স্বাভাবিক।"

শুভম আলতো করে রাতুলের হাতে হাত ছোঁয়ালো।

--" শরীর সুস্থ পুরোপুরি? আজকে না আসলেও পারতিস! "

--"আমি পুরোপুরি সুস্থ তরী। তোমাকে একদিন না দেখলে কেমন যেন লাগে আমার। তাই চলে এলাম।"

--"গতকাল তুমি আমায় কথা দিয়েছিলে সারাদিন শুয়ে থাকবে, বিশ্রাম করবে। বিশ্রাম করেছিলে? ঘর থেকে বের হওনি তো? "

--"তরী... তুই তো জানিস আমি তোর কথা রাখি। আমাকে বিশ্বাস করিস না? " BENGALI LOVE STORY

--"আমি কি বলেছি আমি তোমাকে অবিশ্বাস করি? "

--"তাহলে অমন কথা কেন জিজ্ঞেস করলি? "

--" কারণ তুমি তো বাইরে না বেরিয়ে বিকেলে থাকতেই পারনা... সেইজন্যই জিজ্ঞেস করলাম... কাল ও এরকমই করেছ কিনা...আমি চিৎকার করবো বলে হয়তো আমাকে না বলেই বেরিয়ে গেছিলে। পাগল…"

--" ( মৃদু হেসে) না রে খেপি... কালকে আমি সারাদিন শুয়ে ছিলাম। ঘরের দরজার চৌকাঠ পর্যন্ত পার হয়নি। এখন চল তো আইসক্রিম খাওয়াবো তোকে"

দুজনে উঠে দাঁড়ায়। শুভম চারপাশে তাকিয়ে হঠাৎ করেই তরীর গালে একটা চুমু বসিয়ে দেয়। তরী কিছুটা চমকে যায়। পরক্ষনেই সে লজ্জায় লাল হয়ে মাথা নিচু করে নেয় আর শুভমের পেটে একটা ঘুষি মারে । তারপর তারা হাঁটতে থাকে। সারাটা বিকেল তারা এদিক সেদিক হাঁটাহাঁটি করে। আইসক্রিম, ফুচকা, চটপটি খায়। তারপর মোমো খায় । মোটকথা তারা খুব ভাল সময় কাটায় একসাথে। আর শুভম তরির সব প্রীয় খাবার খাওয়ায় । সন্ধ্যা পার করে তারা একটা বাঁধানো জায়গায় গিয়ে বসে। শুভম আর তরীর হাতের আঙুলগুলো একে অপরের সাথে জুড়ে যায়। তারা ওখানে বসে বসে আকাশ দেখে। শহরের মিল ফ্যাক্টরি যানবাহনের ধোঁয়ায় ঢাকা ঘোলাটে আকাশে তখন উঁকি দিচ্ছিল সন্ধ্যাতারা। 
-- "চল...এবার বাড়ি ফেরা যাক…" তরী বললো ।
-- " থাক না আর একটুক্ষণ " CUTE BENGALI LOVE STORY

তরী হালকা হাসি হাসে শুভমের দিকে তাকিয়ে থাকে। একবার শুভমের চোখে চোখ বুলিয়ে নেয় । যেন ওর চোখ দিয়েই ওর সব না বলা কথাগুলো একবার শুনে নেয় ।

--" আমায় ছেড়ে কখনো যাসনা তরী "

তরী হেসে চোখ নামিয়ে নেয়...আর বলে ….

--" কে জানে কর ভাগ্যে কখন কি লেখা থাকে …."

--" মানে? "

--" কিছুনা তো!...চল চল বাড়ী ফিরতে হবে " বলে তড়িঘড়ি উঠে দাঁড়িয়ে পড়ে তরী । দুজনে হাঁটতে হাঁটতে তরীর বাড়ির একটু আগে পর্যন্ত চলে যায় । বাড়ীর কাছাকাছি এসে তারা ফুটপাতে দাঁড়ায় কিছুক্ষন। এরই ফাঁকে শুভম আবার তরীর গালে চুমু খায়। এবার তরী পিঠে কিল দেয় না, সেও একটা চুমু দেয় শুভমের গালে। তরী শুভমের হাত শক্ত করে ধরে। তারপর বলে….

--"শুভম…. কিছু কথা বলি? "

--" হ্যাঁ বল না। অনুমতি চাওয়ার কি আছে? " ROMANTIC LOVE STORY

--" গতকাল আমি তোমার বাড়ির সামনে যাচ্ছিলাম । আমার ওদিকে একা অত দূরে যাওয়ার কথা ছিল না। এক বন্ধুকে ধরে নিয়ে গিয়েছিলাম তোকে দুর থেকে দেখে আসর জন্য । ভেবেছিলাম তুই তো আগে আমার বাড়ির সামনে আসতিস আমাকে একবার চোখের দেখা দেখতে...তাই তোর শরীর খারাপে আমিই নাহয় যাই তোকে দেখে আসতে...তোকে এই সারপ্রাইজ টা দিলে তোর ও মন ভালো হবে আর একাকিত্বটাও কাটবে । কিন্তু তোর বাড়ী যাওয়ার আগেই রাস্তায় দেখলাম তুই আরেকটা মেয়ের হাতে হাত ধরে বসে আছো। মেয়েটা বাদামের খোসা ছাড়িয়ে তোকে খাইয়ে দিচ্ছে। তোর উপর খুব রাগ হচ্ছিল। মেয়েটাকে কত্ত সুন্দর করে খোসা ছড়িয়ে বাদাম খাইয়ে দিচ্ছিস । কই আমাকে তো খাওয়াতিস না অমন করে ! "

শুভম হঠাৎ করেই স্তব্ধ হয়ে যায়। সে কি বলবে ভেবে পায়না। সে ঠাঁয় দাঁড়িয়ে থাকে সেখানেই। তরী কথা থামায় না। সে বলতে থাকে….

--"একটু পর তোরা উঠে গিয়ে ফুচকা খেলি। বিশ্বাস কর তোদের দুজনকে খুব কিউট লাগছিল। আমার মোবাইলের ক্যামেরা তো ভাল না। তাই বন্ধুর মোবাইল দিয়ে ছবি তুলে রেখেছি। সময় করে তোকে পাঠিয়ে দেব। শুভম এটাই হয়তো তোর সাথে শেষ দেখা। এরপর দেখা হবে হয়ত অন্য কোনো খানে অন্য কোনো রাস্তায়। ভাবিস না আমি তোকে ছেড়ে চলে যাচ্ছি ।তোকে মন থেকে ভালবেসেছি। তাই ছেড়ে যেতে পারব না কখনো । শুধু দূরত্ব টা বাড়িয়ে নিচ্ছি । কারণ আমি তোকে ভালোবেসেও ভালো রাখতে পারিনি । আর তাইজন্য তো তুই অন্যের হাত ধরেছিস । তাইনা? জানি তুইও আমায় মন থেকে ভালবেসেছিলি। কারণ মন থেকে ভাল না বাসলে এতটা নিখুঁত অভিনয় করা সম্ভব না। তবে আমার থেকে ওই মেয়েটাকে তুই বেশি ভালবাসিস। তোরা যখন একে অপরকে চুমু খাচ্ছিলি আমি দেখেছি তোদেরকে। তোর চোখের পাতার নাচুনি আমাকে সব বুঝিয়ে দিয়েছে। তবে ভাবিসনা আমি তোকে ভুলে যাবো। প্রথম মন থেকে ভালোবাসা অত সহজ ছিলনা।আর সেটা যখন পেরেছিলাম,তোকে ভোলা সম্ভব না । ভাল থাকিস তোরা দুজন । যদি কখনো আমার কথা মনে পড়ে আমায় ফোন করিস। ফোনেই নাহোয় তোর নতুন সংসারের গল্প শুনবো ! "

একথা বলতে বলতেই তরীর গাল বেয়ে চোখের জল গড়িয়ে পড়ে। তরী শুভমের কপালে হাত রাখে। যদিও সে জানে শুভমের জ্বর নেই, গতকালকেও ছিল না। তারপর শেষ বারের মত শুভমের দুই গালে চুমু দেয়। তারপর সে হাঁটতে থাকে সামনের দিকে। তার চোখ ঝাপসা হয়ে গেছে। চোখ জ্বালা করছে । এই বিষাক্ত শহরের বিষাক্ত বাতাসের কারণেই হয়তো তরীর চোখ জ্বলছে। সবকিছুই আজ বিষাক্ত। আকাশ, বাতাস, ভালবাসা সবকিছু ।। HEART TOUCHING LOVE STORY
BENGALI LOVE STORY - ' বিষাক্ত ভালোবাসা ' BENGALI LOVE STORY -  ' বিষাক্ত ভালোবাসা ' Reviewed by Bengali love status on April 24, 2020 Rating: 5

No comments:

Powered by Blogger.